• শনিবার, জুন ২৫, ২০২২
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:০৮ দুপুর

নামিবিয়ায় গণহত্যার দায় স্বীকার জার্মানির

  • প্রকাশিত ১০:৪৩ সকাল মে ২৯, ২০২১
আফ্রিকা-জার্মানি
সংগৃহীত

নামিবিয়ার কাছে ক্ষমা চেয়ে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ১৩৪ কোটি ডলার দিতে সম্মত হয়েছে দেশটি, আগামী ৩০ বছর ধরে এই টাকা দেওয়া হবে

জার্মানরা তাদের ঔপনিবেশিক শাসনের সময় আফ্রিকার দেশ নামিবিয়ায় ব্যাপক হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল। অবশেষে একশ' বছরেরও বেশি সময় পরে এসে সেখানে গণহত্যা চালানো হয়েছিল বলে স্বীকার করে নিয়েছে জার্মান সরকার । এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি।

জাতিসংঘ নামিবিয়ার এ ঘটনাকে বিংশ শতকের প্রথম গণহত্যা বলে আগেই চিহ্নিত করেছে। তবে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে বলে জার্মানি এতদিন গণহত্যার অভিযোগ স্বীকার করেনি।

স্থানীয় সময় শুক্রবার (২৮ মে) এক বিবৃতিতে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস বলেন, “নামিবিয়ার সঙ্গে পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে জার্মান সরকারের আলোচনা হয়েছে। এখন আমরা ঔপনিবেশিক আমলের ওই হত্যাযজ্ঞকে আনুষ্ঠানিকভাবে গণহত্যা বলতে পারি। এতে জার্মানির ঐতিহাসিক ও মানবিক দায়বদ্ধতা রয়েছে। আমরা নামিবিয়া ও ওই ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি।”

ক্ষতিপূরণের চুক্তি সইয়ের পর জার্মানির প্রেসিডেন্ট নামিবিয়া গিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে নামিবিয়ার জনগণের কাছে ক্ষমা চাইবেন। নামিবিয়ার জনগণ ও গণহত্যার শিকার মানুষদের উত্তরসূরীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে ক্ষতিপূরণ হিসেবে নামিবিয়াকে ১৩৪ কোটি ডলার দিতে সম্মত হয়েছে জার্মানি। এই টাকা নামিবিয়ার শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অন্যান্য অবকাঠামো উন্নয়নে খরচ করা হবে। অবশ্য আগামী ৩০ বছর ধরে এই টাকা দেওয়া হবে।

১৮৯৪ থেকে ১৯১৫ সাল পর্যন্ত নামিবিয়া জার্মান ঔপনিবেশিক শাসনে ছিল। তখন ওই দেশের নাম ছিল জার্মান দক্ষিণ-পশ্চিম আফ্রিকা। ওই সময় যে গণহত্যা সেখানে চালানো হয়েছিল। হত্যাকাণ্ড শুরু হয়েছিল ১৯০৪ সালে যখন হেরেরো ও নামা উপজাতি তাদের জমি এবং গবাদিপশু দখলের বিরুদ্ধে জার্মান ঔপনিবেশিক শাসকদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ শুরু করে। এ ঘটনায় কতজন মানুষের প্রাণ গিয়েছিল তার সঠিক কোনো পরিসংখ্যান নেই, তবে তা হাজার হাজার (১০ হাজার বিবিসি)। সে সময় প্রায় নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছিল আদিবাসী এই দুই জনগোষ্ঠী।

এদিকে নামিবিয়ার অনেক গোষ্ঠী নেতা এতে খুশি নন। তারা বলছেন,  দুই সরকারের মধ্যে এই বোঝাপড়া তারা অনুমোদন করেননি। হেরেরো আদিবাসী গোষ্ঠীর প্রধান ভেকুই রুকোরো, যিনি জার্মানির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে মামলা করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। তিনি বলেন, ঔপনিবেশিক শাসকরা “যে অপূরণীয় সর্বনাশ’” তাদের করেছে সেই তুলনায় এই ক্ষতিপূরণ যথেষ্ট নয়। নামিবিয়ার সরকার দেশের স্বার্থ বিক্রি করে দিয়েছে।

হেরেরো ও নামা উপজাতির অনেকে আশা করছিলেন নামিবিয়া ও জার্মানির এই চুক্তির পর তাদের পূর্বপুরুষদের জমিজমার মালিকানা তারা ফিরে পাবেন। ক্ষতিপূরণ হিসেবে তাদের হাতে কিছু পয়সা আসবে। তবে জার্মানি প্রথম কোনো সাবেক ঔপনিবেশিক শক্তি যারা তাদের অতীত অপরাধ ও তার ক্ষতিপূরণ নিয়ে আপস মীমাংসা করল।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রোয়ান্ডায় ১৯৯৪ সালের যে ভয়াবহ জাতিগত দাঙ্গায় কমপক্ষে আট লাখ লোক মারা যায়, সেই গণহত্যার দায় স্বীকারে করে ফ্রান্স। রোয়ান্ডার রাজধানী কিগালিতে গিয়ে ফরাসী প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ সেদেশের মানুষের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।

50
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail