• সোমবার, অক্টোবর ০৩, ২০২২
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:০৮ সকাল

শঙ্কা কাটিয়ে মাগুরার পাটচাষিদের মুখে হাসি

  • প্রকাশিত ০৫:৫০ ভোর আগস্ট ১১, ২০২০
মাগুরা
অন্যান্য বছরের তুলনায় বেশি দামে পাট বিক্রি করতে পেরে খুশি কৃষক। ঢাকা ট্রিবিউন

‘বিজেএমসি পাট কেনা বন্ধ করায় আমরা খুবই চিন্তায় ছিলাম। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ২৫০০ টাকা মণ দরে তা বিক্রি করতে পেরেছি। আমি এবার পাটের দরে খুবই খুশি’

সম্প্রতি সরকার রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাটকল বন্ধ ঘোষণা করায় পাট ক্রয় বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ জুট মিল কর্পোরেশন (বিজেএমসি)। ফলে বাম্পার ফলন হওয়া সত্ত্বেও পাটের বাজার নিয়ে শঙ্কিত হয়ে পড়ে কৃষক। তবে ব্যক্তি মালিকানাধীন পাটকলগুলো যথাযথ মূল্যে পাট কেনা শুরু করায় সব শঙ্কা কেটে গেছে মাগুরার পাট চাষিদের।

মাগুরা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর মাগুরায় ৩৫,৩৫০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ হয়েছে। উৎপাদন হয়েছে ৩৫০,৪২০ মেট্রিক টন পাট, যা লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করেছে।

মাগুরা নিজনান্দুয়ালীর কৃষক রইস উদ্দীন বলেন, এবার আমি দুই বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছি। বিজেএমসি পাট নেওয়া বন্ধ ঘোষণা করায় আমরা খুবই চিন্তায় ছিলাম। এবার আমার তিন বেল (১ বেল = ১৮২.২৫ কেজি) পাট উৎপাদিত হয়েছে। শেষ পর্যন্ত ২৫০০ টাকা মণ দরে তা বিক্রি করেছি। আমি এবার পাটের দরে খুবই খুশি।

সদর উপজেলা কছুন্দি গ্রামের কৃষক মোতাহার বলেন, আমি চার বিঘা জমিতে পাট লাগিয়েছিলাম। এবার বৃষ্টির কারণে ফলন ভালো হয়েছে। পাটের বাজার নিয়ে নানা রকম কথাবার্তা শুনলেও ভলো দামেই পাট বিক্রি করতে পেরেছি।

মহম্মদপুরের রামদেবপুরের কৃষক বাচ্চু মোল্লা জানান, আবহাওয়া ভালো ছিলো তাই সেচের জন্য বাড়তি খরচ হয়নি। সরকারও করোনাভাইরাসের কারণে বীজ, সার ও অন্যান্য সুবিধা দিয়েছে। বাজারে পাটের দামও ভালো। সবমিলে এবার আমার ৫০ হাজার টাকা মুনাফা আসবে আশা করছি।


আরও পড়ুন - মাগুরায় নদী দখল করে একগ্রামেই ৩০ ইটভাটা!


মাগুরার বিশিষ্ট পাট ব্যবসায়ী বিধান সাহা বলেন, বিজেএমসির কাছে ব্যবসায়ীদের কয়েক কোটি টাকা পাওনা থাকায় অনেক ব্যবসায়ী এবার পাট কিনবে না বলে ভেবেছিলাম। কিন্তু বেসরকারি মিলগুলো নগদ অর্থে পাট কেনায় আমরা অনেকেই আবার কৃষকের কাছ থেকে পাট সংগ্রহ করছি। মিলগুলো ভালো দাম দেওয়ায় আমরা কৃষককেও খুশি করতে পারছি।

কৃষি ও প্রকৃতি বিষয়ক স্থানীয় বেসরকারি সংস্থা পল্লী-প্রকৃতির নির্বাহী পরিচালক শফিকুর রহমান বলেন, “বিজেএমসি দেশের উৎপাদিত পাটের দশ ভাগও ক্রয় করে না। শতকরা ৯০ ভাগ পাট ক্রয় করে বেসরকারি পাটকলগুলো। উপরন্ত, পাকিস্তান ও চীনের পাট আমদানির প্রতি আগ্রহ এবার পাটের বাজারকে ঊর্ধ্বমুখী করে তুলেছে। সব শঙ্কা কাটিয়ে কৃষক হাসতে পেরেছে এটাই আমার কথা।”

মাগুরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, “মাগুরায় এবার বৃষ্টি ভালো হওয়ায় পাট উৎপাদন ভালো হয়েছে। সেই সাথে সরকারি প্রণোদনা কৃষকের উৎপাদন খরচ অনেক কমিয়ে দিয়েছে। বিজেএমসি বন্ধ থাকলেও সমস্ত শঙ্কা কাটিয়ে হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে।”

50
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail