• মঙ্গলবার, আগস্ট ১৬, ২০২২
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:০৮ দুপুর

অবৈধ ইটভাটায় গ্রামবাসীর নাভিশ্বাস

  • প্রকাশিত ১০:২৭ রাত জানুয়ারি ২৫, ২০২১
খুলনা
খুলনার পাইকগাছার রামনাথপুর গ্রামের একটি ইটভাটা। ঢাকা ট্রিবিউন

‘আমি ৩-৪ বিঘা জমিতে পান চাষ করতাম। এখন সব কয়লা খনি’

খুলনার পাইকগাছার রামনাথপুর গ্রামের ৮০% লোকের পেশা কৃষি কাজ। তবে গ্রামের মধ্যে ঢুকলেই বাতাসে চোখ জ্বলে, আসতে থাকে কাশি। গায়ের পোশাকের ওপর ধুলোর আস্তরণ পড়ে, সাদা কাপড় কালো হয়ে আসে। আশপাশের গাছপালা ও জমির ফসলে শুধু ছাইয়ের স্তর। শুধু তাই নয়, ফসলহীন হয়ে পড়েছে এলাকা। শিশু থেক শুরু করে স্থানীয়দের শ্বাসকষ্টসহ নানাবিধ রোগ দেখা দিচ্ছে। 

আর এ সব কিছুর পেছনে রয়েছে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ইটভাটা। 

জানা গেছে, লাইসেন্স বাতিল হওয়ার পরও প্রভাব খাটিয়ে জনবহুল, কৃষি জমি সংলগ্ন এলাকায় এসব ইটভাটা পরিচালনা করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, ভাটা নিয়ে সাংবাদিকদের তথ্য দেওয়ায় ইটভাটা শ্রমিকরা স্থানীয় বাসিন্দাদের হুককি-ধমকি দিচ্ছে। ফলে আতংকিত হয়ে পড়ছে পাইকগাছা উপজলার রামনাথপুর গ্রামের পাঁচ সহস্রাধিক মানুষ। 

স্থানীয়দের অভিযাগ, বিগত ৭-৮ বছর ধরে রামনাথপুরের মানুষ ইটভাটা অপসারণের দাবি জানালেও ভাটা মালিকরা শোনেননি। উল্টো তারা নানাভাবে হয়রানি শিকার হচ্ছেন। সম্প্রতি ভাটার লাইসেন্স বাতিল করলে তাদের দাপট কমছে না। 

সরেজমিন পরিদর্শনে জানা যায়, ২০০৫ সালে অখিলবন্ধু ঘোষ, মজিদ মোড়ল ও চিত্তরঞ্জন মন্ডল কপোতাক্ষ নদী সংলগ্ন এলাকায় "যমুনা ব্রিকস" নামে একটি ইটভাটা স্থাপন করেন। পরবর্তীততে তারা আধুনিক জিগজ্যাগ কিলনে ভাটা স্থাপনসহ ৭টি শর্তে অখিলবন্ধু ঘোষের নামে ২০১২ সালর ১ জুলাই থেকে ভাটা পরিচালনার লাইসন্স পান। ২০১৫ সালের ৩০ জুন ওই লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হলে ওই ভাটা থেকে নিজের বিনিয়োগ অংশ তুলে নেন অখিল বন্ধু ঘোষ। তিনি ওই সময় জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরে লিখিতভাবে ভাটা পরিচালনা করবেন না বলে অবহিত করেন। সর্বশেষ ২০২০ সালের ২৯ ডিসেম্বর খুলনা জেলা প্রশাসক ওই ভাটার লাইসেন্স বাতিল করেন। 

বর্তমানে অপর মালিক চিত্তরঞ্জন মন্ডল, মজিদ মোড়ল ও তার পুত্র মিঠু মোড়ল ভাটাটি পরিচালনা করছেন। একই সাথে ওই ভাটার পাশ জনবহুল এলাকায় "যমুনা ব্রিকস-০২" নাম আরেকটি ভাটা স্থাপন করছেন।

ভাটার মূল মালিক অখিলবন্ধু ঘোষ বলেন, "আমি যখন ভাটা করি, তখন ওই এলাকায় জনবসতি কম ছিল। জমিও ছিল ৪৫ বিঘার মতো। পরবর্তীত স্থানীয় মানুষের দাবিতে ভাটা বন্ধ করে জেলা প্রশাসেক দপ্তরে লাইসেন্স বাতিলের আবেদন করি। ২০২০ সালের ২৯ ডিসম্বর ওই লাইসেন্স বাতিল হয়েছে। কিন্তু লাইসেন্স বাতিল হওয়া ভাটা এখনও চলছে। জানি না প্রশাসন কী করছে। ওই এলাকার মানুষ বিপদে রয়েছেন।"

রবিবার ওই এলাকায় গেল গহবধূ শেফালী বিশ্বাস (৫৫) বলেন, "আমরা পরিবেশ উপ-মন্ত্রীসহ বিভিন্ন দপ্তরে ভাটা বন্ধের দাবি জানিয়েছি। তারা আশ্বাস দিলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। এখন আমরা মরতে বসেছি। বাচ্চা-বুড়াদের শ্বাসকষ্ট বাড়ছে। ভাটার ছাঁইয়ে ঘর, খাবার রানা ও খাওয়া যায় না। আমরা তো বিষ খাচ্ছি। এখানকার মেয়ে-বউরা প্রতিনিয়ত ভাটা শ্রমিকদের বাজে কথা-ব্যবহারের শিকার হন। এ থেকে আমরা মুক্তি চাই।"

কৃষক অশোক কুমার দাস বলেন, "আমি ৩-৪ বিঘা জমিতে পান চাষ করতাম। এখন সব কয়লা খনি! গরমকালে এখানে বাস করা দুরূহ।" 

এদিকে রবিবার ওই এলাকা ঘুরে আসার পর সন্ধ্যায় ভাটা শ্রমিকরা স্থানীয়দের হুমকি-ধমকি, অশ্লীল ভাষার গালিগালাজ করে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। 

পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইজাজ শফি বলেন, "রামনাথপুরের ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গিয়েছে। আমরা বিষয়টি গুরুত্বর সাথে দেখছি।"

যমুনা ব্রিকস এর মালিক চিত্তরঞ্জন মন্ডল ইটভাটার লাইসেন্স না থাকার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, "আমরা নতুন লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেছি। যে শ্রমিক স্থানীয়দের সাথে দুব্যর্বহার করছে, তাকে চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে। আমরা আইন মেনে ভাটা চালাতে চাই।"

পাইকগাছা উপজলা নির্বাহী অফিসার এ বি এম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী বলেন, "ওই ভাটাতে দ্রুত অভিযান চালানা হবে। কোনোভাবেই অবৈধভাবে ভাটা চলতে দেয়া হবে না।"

50
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail